বল হাতে শিকার ধরে ব্যাটিংয়ে ডাক

বল হাতে শিকার ধরে ব্যাটিংয়ে ডাক, দীর্ঘদিন পর মাঠে ফিরেও বল হাতে নিজের কাজটা ঠিকই করে

যাচ্ছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এই বয়সে চলতি বিপিএলে তার পারফর্মেন্স প্রশংসাযোগ্য। ৪ ম্যাচে নিয়েছেন

৪ উইকেট। আজ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষেও শিকার ধরেছেন মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার হয়ে খেলা মাশরাফি।

আরও খবর পেতে ভিজিট করুউঃ distonews.com

বল হাতে শিকার ধরে ব্যাটিংয়ে ডাক

আঁটসাট বোলিংয়ে ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে তার শিকার ১টি। বল হাতে মাশরাফি ডট দিয়েছে ৯টি, ওয়াইড ১টি।

চার হজম করেছেন ২টি। তার একটি শর্ট পিচ ডেলিভারিতে অসল শট খেলতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে

মোহাম্মদ নাঈমের তালুবন্দি হন চট্টগ্রামের সাবেক অধিনায়ক মেহেদি মিরাজ (২)। চলতি টুর্নামেন্টে আজ আবারও

অধিনায়ক বদলেছে চট্টগ্রাম। মিরাজ, নাঈমের পর আজ নেতৃত্বভার চেপেছে আফিফ হোসেনর ওপর।

মাহমুদউল্লাহর বলে আউট হওয়ার আগে আফিফ করেন ২৪ বলে ২৭। চট্টগ্রামের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৭ বলে ৫২ রান

করেন শামীম হোসেন। শেষের দিকে বেনি হাওয়েলের ১৯ বলে ২ ছক্কায় ২৪ রানে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে তোলে চট্টগ্রাম।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপদেই পড়েছে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা

২১ রানে নেই হয়ে যায় ৩ উইকেট। মোহাম্মদ শেহজাদ ৮ বলে ৭ রান করে শরীফুলের শিকার হন। ইরমানকে (৮) তুলে নেন নাসুম আহমেদ। বেশ চমক দেখিয়েই চারে নামানো হয় মাশরাফিকে। কিন্তু ফাটকাটা কাজে লাগেনি। ২ বল খেলে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর বলে বোল্ড হয়ে শূন্য রানে ফিরেন মাশরাফি। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তামিম ইকবালের সঙ্গী হয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। ৯ ওভারে ৩ উইকেটে ঢাকার রান ৩ উইকেটে ৪৬।

ইন্দোরের মিউনিসিপাল করপোরেশন শতভাগ ঘরে ঘরে গিয়ে বিচ্ছিন্ন বর্জ্য সংগ্রহের ব্যবস্থা, মিউনিসিপাল ক্লিনারদের জন্য বায়োমেট্রিক উপস্থিতি ব্যবস্থা, জিপিএস-ট্র্যাক করা যায় এমন বর্জ্য সংগ্রহের যানবাহন ইত্যাদির বিশদ বিবরণ দিয়েছে।

বল হাতে শিকার ধরে ব্যাটিংয়ে ডাক

অন্যদিকে, ডিএনসিসি কর্মকর্তারা তাদের সর্বোত্তম অনুশীলনগুলোর বিষয়ে এবং কিভাবে কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ অন্যান্য পৌর পরিষেবার ক্ষেত্রে সহযোগিতা এগিয়ে নেওয়া যায় সে সম্পর্কে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে শ্রীমতী রূপা মিশ্র বলেন, পারস্পরিক শিক্ষার অনেক সুযোগ রয়েছে এমন একটি বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে ভারত আনন্দিত। তিনি সহযোগিতা এগিয়ে নেওয়ার উদ্যোগকে স্বাগত জানান।

২০২১ সালে ভারত সরকার কর্তৃক পরিচালিত

বার্ষিক পরিচ্ছন্নতা সমীক্ষায় (স্বচ্ছ সর্বক্ষণ) ইন্দোর শহরকে ভারতের সবচেয়ে পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবে স্থান দেওয়া হয়েছিল৷ মধ্যপ্রদেশ রাজ্যে অবস্থিত এই শহরটি ২০১৭ সাল থেকে টানা পাঁচবার এই স্থান জিতেছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য এর প্রশংসনীয় পদ্ধতির কারণে, যার মধ্যে রয়েছে বর্জ্য পৃথকীকরণ, ঘরে ঘরে গিয়ে বর্জ্য সংগ্রহ, বাসিন্দাদের দ্বারা বাড়িতে কম্পোস্টিং, দিনের বর্জ্য পুনর্ব্যবহার, কেন্দ্রীয় কম্পোস্টিং সুবিধা ইত্যাদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.