খালেদা জিয়াকে মাদার অব ডেমোক্রেসি সম্মাননা

খালেদা জিয়াকে মাদার অব ডেমোক্রেসি সম্মাননা, গণতন্ত্রে অসামান্য অবদানের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে

কানাডিয়ান হিউম্যান রাইটস ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (CHRIO) ‘মাদার ডেমোক্রেসি’ পুরস্কারে ভূষিত করেছে।মঙ্গলবার বিকেলে এক

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের হাতে কানাডিয়ান সংগঠনের দেওয়া ক্রেস্ট ও সনদ তুলে

দেন।গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে

আরও খবর পেতে ভিজিট করুউঃ distonews.com

 

খালেদা জিয়াকে মাদার অব ডেমোক্রেসি সম্মাননা

এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানেরসভাপতিত্বে দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির

বৈঠকের সিদ্ধান্তগুলো এক সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরা হয়।সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ইকবাল হাসান

মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।তিনি বলেন, “আমরা ঘোষণা করতে পেরে আনন্দিত যে কানাডিয়ান হিউম্যান রাইটস ইন্টারন্যাশনাল

অর্গানাইজেশন (CHRIO) দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে এবং খালেদা জিয়া এখনও সংকটাপন্ন অবস্থায় গৃহবন্দি রয়েছেন

” এসব কারণে দেশনেত্রীকে মাদার অব ডেমোক্রেসি অ্যাওয়ার্ড

দিয়েছে সংগঠনটি। কানাডার হাইকমিশনও এখানে অনুমোদন দিয়েছে। ‘৭১ দিন হাসপাতালে থাকার পর, বিএনপি চেয়ারপারসন

খালেদা জিয়া ১ ফেব্রুয়ারি ফিরোজায় তার বাড়িতে ফিরে আসেন। দুদকের দায়ের করা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

সালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে যান খালেদা জিয়া। দুই বছর কারাগারে থাকার পর, সরকারের বিশেষ বিবেচনায় পরিবারের অনুরোধে 25 মার্চ,

2020 তারিখে করোনা প্রাথমিকভাবে শর্তসাপেক্ষে মুক্তি পায়। এরপর থেকে তিনি গুলশানের ওই বাসায় রয়েছেন।আওয়ামী লীগের

সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হয়েছেন মোফাজ্জল হোসেন

চৌধুরী মায়া ও কামরুল ইসলাম। সোমবার দলটির পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।এতে বলা হয়, আওয়ামী

লীগের ২১তম জাতীয় কাউন্সিল কর্তৃক প্রদত্ত ক্ষমতাবলে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ও কামরুল ইসলামকে দলের সভাপতিমণ্ডলীর

সদস্য পদে মনোনয়ন প্রদান করেছেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা।আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, দলটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ

সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ১৯ জন।২০১৯ সালের জাতীয় সম্মেলনের পর ঘোষিত কমিটিতে সভাপতি শেখ

হাসিনা এবং সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সদস্যরা হলেন-সাজেদা চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ

নাসিম, কাজী জাফর উল্লাহ, সাহারা খাতুন, মোশাররফ হোসেন,

পীযূষ কান্তি ভট্টাচার্য, নুরুল ইসলাম নাহিদ, আবদুর রাজ্জাক, মুহাম্মদ ফারুক খান, রমেশ চন্দ্র সেন, আবদুল মান্নান, আবদুল মতিন খসরু,

শাজাহান খান, আব্দুর রহমান ও জাহাঙ্গীর কবির নানক।এর মধ্যে মোহাম্মদ নাসিম, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ও অ্যাডভোকেট

আবদুল মতিন খসরু মৃত্যুবরণ করেন। এই তিন শূন্য পদে নতুন তিনজনকে নেওয়া হয়েছে।

খালেদা জিয়াকে মাদার অব ডেমোক্রেসি সম্মাননা

রাজশাহীর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনকে এর আগে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য করা হয়। আজ নতুন দুজনকে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য করে পদসংখ্যা পূর্ণ করা হলো।

এর মধ্যে সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম মহানগর আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

তিনি আওয়ামী লীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদেরও সদস্য। সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বর্তমানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.